সাতক্ষীরায় হিন্দু ধর্মাবলম্বী পরিবারের বাড়িঘর ভাংচুর ও লুটপাটের অভিযোগ!

সাতক্ষীরা প্রতিনিধি: সাতক্ষীরার পাটকেলঘাটা থানাধীন ধানদিয়া ইউনিয়নের সেনেগাতিতে এক সংখালঘু পরিবারের বাড়ি ঘর পরিকল্পিতভাবে ভাংচুরের অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ সময় লুটপাট করা হয়েছে নগদ আড়াইলক্ষ টাকা ও আড়াই লক্ষটাকার স্বর্ণের গহনা। হামলার শিকার হয়ে আহত হয়েছেন ওই সংখালঘু পরিবারের ৪ জন। এ দিকে বসৎবাড়ি ভাংচুর করায় খোলা আকাশের নিচে রাত্রি যাপন করতে হচ্ছে ওই সংখালঘু পরিবারের সদস্যদের। গতকাল সকালে এ ঘটনা ঘটে।

স্থানীয়রা জানান, ধানদিয়া ইউনিয়নের সেনেগাতী মৌজার ১৭৭৮ দাগে ৫৫ শতক জমিতে মৃত ললিত মন্ডলের ছেলে সুকুমার মন্ডল, তপন মন্ডল ও বিমল মন্ডল দীর্ঘ দিন যাবৎ বসবাস করছে। বছর দুই আগে ওই জমি ভাগবাটোয়ারা নিয়ে তিন ভাইয়ের মধ্যে ঝামেলা হলে স্থানীয় ব্যক্তিবর্গ ৫৫ শতক জমির তিন ভাইয়ের মধ্যে সমান ভাবে ১৬ শতক করে জমি ভাগ করে দেন। আর বাকি ৭ শতক জমি প্রবেশের রাস্তার জন্য রেখে দেন। এতে তিন ভাই সম্মত হয়।

ওই রাস্তা তৈরীর জন্য বিমল মন্ডল ঘরের বারান্দা পর্যন্ত ভেঙে নেন। কিন্তু তপন মন্ডল ওই রাস্তার জন্য জমি না ছেড়ে পরবর্তীতের বিমলের ওই ২ শতক ৪ গোন্ডা জমি দখলের জন্য পায়তারা শুরু করে। এরপর তপন মন্ডল মেম্বর গোলাম মোস্তফার সাথে গোপনে চুক্তি করে বিমলের ওই ঘর উচ্ছেদের ষড়যন্ত্র করে। এরই সূত্র ধরে গতকাল শনিবার সকাল সাড়ে ১০টার দিকে মোস্তফা মেম্বরের নেতৃত্বে হান্নান মেম্বর, মিলন মেম্বর, শহিদুল মেম্বর ও সাবেক মেম্বর রিজু বিমলদের বাড়িতে এসে ঘর ভাঙতে বলে। তখন বিমল ঘর ভাঙতে রাজি না হওয়ায় মেম্বর গোলাম মোস্তফা তপনকে বলে এই ঘর ভেঙে ধুলিসাৎ করে জায়গা পরিস্কার কর। এরপরপরই তপন মন্ডল, মৃত তারাপদ মন্ডলের ছেলে ইন্দ্রজিৎ মন্ডল হাজরা মন্ডলের ছেলে সুকুমার মন্ডল, রাধাপদ মন্ডলের চেলে সনজিৎ মন্ডল ও সুজিত মন্ডল,রনজিৎ মন্ডলের ছেলে বাসুদেব মন্ডল, সুকুমার মন্ডলের ছেলে সুজন মন্ডল, শান্তিরাম মন্ডলের ছেলে কিনারাম মন্ডল বিমলদেও বসৎঘর ভাংচুর শুরু করে।

স্থানীয়রা আরো বলেন, মেম্বর হয়ার পর হতে মেম্বও গোলা মোস্তফা সেনেগাতী এলাকার ত্রাসে পরিষত হয়েছে। সে বিভিন্ভাবে মানুষকে হুমকি দিয়ে, ভয় দেখিয়ে জমি দখল সহ বিভিন্ন আইন বিরোধী কাজ হরহামেশে করেই যাচ্ছে।।তার বিরুদ্ধে কেউ কথা বলেলেই তাকে মামলাসহ বিভিন্নভাবে বিপদে ফেলার জন্য চক্রান্ত শুরু করে। ২০১৮ সালের ১৯ জুলাই গোলাম মোস্তফার নেতৃত্বে বিমলের জমি দখলের জন্য বিমলদের বাড়ি ঘর ভাংচুর করেছিল সন্ত্রাসীরা।

এ ব্যাপারে বিমল মন্ডল বলেন, আমাদের ঘর ভাংচুর করতে মোস্ত মেম্বরের সাথে আরো মেম্বরেরা এসেছিলো। আমাদের ঘর ভাংচুরের সময় আমার ছেলেরা ভিডিও করতে গেলে মেম্বর আমার ছেলেকে তাড়ায়, আমার মেজ ভাশুরের ছেলেটাকে ও আমাকে ওরা মারপিট করেছে। আমাদের ৩ টা বসৎঘর ভাংচুর করে মাটির সাথে মিশিয়ে দেয়া হয়েছে।। আমাদের বাড়িতে রক্ষিত থাকা আড়াইলক্ষ নগদ টাকা ও আড়াইলক্ষ টাকা মূল্যের স্বর্ণের গহনা লুট করে নিয়ে গেছে।

তবে অভিযোগ অস্বীকার করে মেম্বর গোলাম মোস্তফা বলেন, বিমলদের অনুমতিতে ওই ঘর ভাঙা হয়েছে। এ ছাড়া আমার বিরুদ্ধে যেগুলো বলা হচ্ছে সেগুলো সত্য নয়।

পাটকেলঘাটা থানার পুলিশ পরিদর্শক(তদন্ত) জেল্লাল হোসেন বলেন, খবর পেয়ে পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করে সংখালঘু পরিবারের ঘর ভাংচুর করার প্রমান পেয়েছে। এ ব্যপারে বিমল মন্ডল বাদি হয়ে থানায় একটি লিখিত এজাহার দায়ের করেছেন। এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে বলে জানান তিনি।

Source: ইন্টারনেট

Leave a Reply