মুসলিম বখাটের উত্ত্যক্তে অতিষ্ঠ হয়ে হিন্দু ছাত্রীর আত্মহত্যা

সরিষাবাড়ী (জামালপুর) প্রতিনিধি >> বখাটের উত্ত্যক্তে অতিষ্ঠ হয়ে সোয়া সাহা নামে এক ছাত্রী আত্মহত্যা করেছে বলে অভিযোগ উঠেছে। জামালপুরের সরিষাবাড়ীর পোগলদিঘা ইউনিয়নের সাঞ্চারপাড় গ্রামে গত সোমবার এ ঘটনা ঘটে।

বখাটে পাশের মূলবাড়ী গ্রামের প্রভাবশালী মতি তালুকদারের ছেলে তানিন তালুকদার। এ ঘটনায় বখাটের সহযোগী সন্দেহে রিয়াদ তালুকদার নামে একজনকে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

নিহত সোয়া সাহার বাবা নারায়ণ সাহা জানান, সরিষাবাড়ী সালেমা খাতুন উচ্চ বিদ্যালয়ের সপ্তম শ্রেণির ছাত্রী ছিল সোয়া সাহা ওরফে অন্তরা। স্কুলে যাওয়া-আসার সময় দীর্ঘদিন ধরে তাকে উত্ত্যক্ত করে আসছিল তানিন তালুকদারসহ তার সহযোগীরা। তারা প্রভাবশালী হওয়ায় সোয়া সাহার পরিবারের সদস্যরা কোনো কিছু বলার সাহস পেত না। এ নিয়ে তানিনের পরিবারের কাছে বারবার বিচার চেয়েও কোনো সুরাহা হয়নি। 

এ ঘটনার ধারাবাহিকতায় চার দিন আগে রাস্তায় সোয়া সাহার মুখচাপা দিয়ে জড়িয়ে ধরে জোরপূর্বক মোবাইলে সেলফি তোলে বখাটে তানিন। পরে সোয়াকে আপত্তিকর প্রস্তাব দেয়। প্রস্তাবে সাড়া না পেয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ওই ছবি প্রকাশ করে দেয় তানিন। এ ঘটনা এলাকায় ছড়িয়ে পড়ে। সোমবার বিকেলে পৌর আরামনগর বাজার এলাকার মামুন স্মৃতি কোচিং একাডেমিতে প্রাইভেট পড়ে সন্ধ্যায় বাড়ি ফেরে সোয়া। এ সময় ফেসবুকে ওই সেলফি বিষয়ে বাবা-মাকে না বলায় তারা সোয়া সাহাকে গালাগাল করেন। এর জেরে সন্ধ্যা সাড়ে ৭টার দিকে বাড়ির বসতঘরে মায়ের শাড়ি দিয়ে সিলিং ফ্যানে ঝুলে আত্মহত্যা করে সে।

এ খবর এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে তানিনসহ তার সহযোগীরা পালিয়ে যায়। 

মঙ্গলবার এ ঘটনায় নারায়ণ সাহা বাদী হয়ে তানিনকে প্রধান আসামি করে তার সহযোগীসহ তিন-চারজনের বিরুদ্ধে সরিষাবাড়ী থানায় হত্যা মামলা করেন।

সরিষাবাড়ী থানার ওসি মাজেদুর রহমান জানান, নিহতের বাবা নারায়ণ সাহা বাদী হয়ে মামলার পর তানিনের সহযোগী একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে। বাকিদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে.

Credit/ Courtesy: সমকাল

Leave a Reply