কালী মন্দিরের সমানে বিক্রি করা হচ্ছে গরুর মাংস

রনি দে, কক্সবাজারঃ এটা কোন হিন্দু গরিষ্ট ভারত নয়। কালী মন্দিরের সামনে গরুর মাংস বিক্রয় করার চিত্রটি বাংলাদেশের কক্সবাজার জেলার মহেশখালী উপজেলা গোরকঘাটা বাজারের  চৌরাস্তায়

আজ রবিবার আবার মহেশখালী উপজেলার গোরকঘাটা বাজারের চৌরাস্তায় কালী মন্দিরের সামনে গরুর মাংস বিক্রি করতে দেখা যায়।

মন্দির কমিটির দাবি এই রকম ঘটনা যদি অন্য কোন ধর্মীয় প্রতিষ্টানের সামনে ঘটতো তাহলে আজ হাজার তাল বাহানার খেলা ১৯৭১ সালের ন্যায়, মহেশখালীতে হয়ে যেত। তাদের দাবি সব সময় দেখা যায় মন্দিরে পেছন দিকে এবং সামনে গরুর মাংস বিক্রি করতে

তারা  বিষয়টির তিব্র নিন্দা করেছেন। তারা নেতাদের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলছেন, নেতারা আজ কোথায়? কেন এত সাম্প্রদায়িক চিন্তা? হিন্দুরা কী কখনো এই রকম করেছে ? তারা আরো বলেন অনেক বন্ধুর হয়তো খারাপ লাগতে পারে! কিন্তু তাদের বেলায় এমন হলে কিন্তু আমাকে বা আমাদের ছাড় দিত না, তার প্রতিকার করতো

তাদের বক্ত্যব্য বাজারে আরো তো অনেক জায়গা ছিল শুধু মাত্র সাম্প্রদায়িক দাঙ্গা বাধানো, সনাতন ধর্মাবলম্বীদের চেতনায় আঘাত করার জন্য, হিন্দু মন্দিরে ভাংচুর ও লুট, মন্দির দখল ইত্যাদি কাজ করার জন্য এই ধরনের কাজ

তারা বিনয়ের সহিত প্রশানকে অনুরোধ করে জানাতে চান, মন্দিরের পবিত্রতা রক্ষা করার জন্য এই ব্যবসা মন্দিরের সামনে/পেছন থেকে উচ্ছেদ করা হোক, এবং ঐ ব্যক্তিদের দৃষ্টান্ত মুলক ব্যবস্থা গ্রহন করার জন্য জোরালো পদক্ষেপ গ্রহন করতে অনুরোধ

তারা সরকারের দৃষ্টি আকর্ষণ করে বলেছেন মন্দিরের সামনে এই রকম গরুর মাংস বিক্রয় ভাল দেখায় না। যদি বাংলাদেশ ধর্মনিরপেক্ষ দেশ হয় তবে সরকার এর বিরুদ্ধে পদক্ষেপ নেবেন। হিন্দু সম্প্রদায় একচেটিয়াভাবে নৌকায় ভোট দেয় কারন তারা মনে করেন শেখ হাসিনা জননেত্রী। তিনি সঙ্খালঘুদের পাশে থাকবেন।

Credit: The Newse

Leave a Reply